শেষ মুহূর্তে উইলিয়ামসের গোলে জয় এটিকে-মোহনবাগানের

বৃহস্পতিবার হাই প্রোফাইল ম্যাচে চেন্নাইয়ান এফসির মুখোমুখি হয়েছিল এটিকে-মোহনবাগান। টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট নষ্ট করে চেন্নাইয়ানের বিপক্ষে জয় ফিরে পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছিল এটিকে-মোহনবাগান। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচের শেষলগ্নে ডেভিড উইলিয়ামসের গোলে চেন্নাইয়ান এফসিকে হারিয়ে জয়ের সরণিতে ফিরল হাবাসের দল। 

ম্যাচের প্রথম একাদশে ডেভিড উইলিয়ামস ও প্রবীর দাসকে বাইরে রেখে জাভি হার্নান্দেজ ও মনবার সিংকে নিয়ে দল সাজিয়েছিলেন স্প্যানিশ কোচ অ্যান্থনিও লোপেজ হাবাস। এছাড়াও এদিনের ম্যাচে প্রথম থেকেই মাঠে ছিলেন মিডফিল্ডার সাহিল। প্রথমার্ধে দাপট দেখিয়ে আক্রমণ করেছিল এটিকে-মোহনবাগান। তবে চেন্নাইয়ানের রক্ষণভাগ রয় কৃষ্ণদের আক্রমণকে ভোঁতা করে দিয়েছে। তবে ম্যাচের প্রথম থেকেই আসহায় দেখিয়েছে এটিকে-মোহনবাগানের দুরন্ত স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণকে। প্রথামার্ধের শেষ মুহূর্তে ইসমার বাড়ানো বল নিয়ে গোলের খুব কাছে পৌঁছে গিয়েছিলেন চেন্নাইয়িনের রহিম আলি। কিন্তু  গোলে বল জড়াতে ব্যর্থ হন বঙ্গ স্ট্রাইকার। প্রথমার্ধ শেষ  হয় গোল শূন্য ভাবে। 

দ্বিতীয়র্ধ শুরু হতেই আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় দক্ষিণের দল চেন্নাইয়ান এফসি। কিন্তু টিরি-প্রীতম-সন্দেশ ঝিঙ্গনকে ভেদ করে এগিয়ে যেতে পারেনি। দূর থেকে শট নিলেও অরিন্দমের হাতেই গিয়ে জমা হয়। মনবীরেরে পরিবর্তে মাঠে নামেন ডেভিড উইলিয়ামস। ৭৫ মিনিটে জাভির দুরন্ত ফ্রিকিক ক্ষিপ্রতার সঙ্গে রক্ষা করে দুর্গ অক্ষত রাখেন চেন্নাইয়ানের গোলকিপার বিশাল কাইথ। ৮৫ মিনিটে এটিকে-মোহনবাগানের রক্ষণে হানা দিয়েছিল চেন্নাইয়ান। তবে গোললাইন সেভ করে দলকে বাঁচালেন ডিফেন্ডার টিরি। ম্যাচ যখন ফের ড্রয়ের দিকে এগোচ্ছে, ঠিক তখনই  বাজিমাত করলেন পরিবর্ত উইলিয়ামস। সংযুক্ত সময়ে জাভির কর্নার থেকে ডেভিড উইলিয়ামসের ড্রপ হেডে চেন্নাইয়িনের জালে বল জড়াতেই স্বস্তির নিঃশ্বাস এটিকে-মোহনাবাগন শিবিরে।

বৃহস্পতিবারের লড়াই শেষে ১২ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট পেয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে হাবাসের এটিকে-মোহনবাগান। অন্যদিকে ১৩ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট চেন্নাইয়ন এফসির।লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থান পাকা করে লিগ শীর্ষ দখলের লড়াইয়ে হাবাসের দল।


Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.