খরচ ১০০ কোটি, রামমন্দিরের আদলেই তৈরি হচ্ছে অযোধ্যা রেলস্টেশন

দীর্ঘ টানাপোড়েন ও আইনি লড়াইযের পর অবশেষে অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণের অনুমতি মিলেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘটা করে ভুমিপূজন করে এসেছেন নতুন রামমন্দিরের। অপরদিকে নতুন রূপে বাবরি মসজিদ তৈরির পরিকল্পনাও পাকা। ফলে গোটা অযোধ্যায় এখন সাজো সাজো রব। বসে নেই ভারতীয় রেলও। নতুন রূপে আসছে অযোধ্যা রেলস্টেশন। অনেকটা প্রস্তাবিত রাম মন্দিরের আদলেই তৈরি হবে অযোধ্যা স্টেশন। 

এই স্টেশনটি পুনর্নির্মাণ করতে ইতিমধ্যেই ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আশুতোষ গঙ্গল জানিয়েছেন, 'অযোধ্যা রেল স্টেশনকে সাজানোর পরিকল্পনা আগে থেকেই ছিল। এবারে একেবারে মন্দিরের ছাপ থাকবে স্টেশনে। এখানে নামলেই মনে হবে দেবতার স্থানে এসেছেন'। তিনি আরও জানান, যাত্রী সুবিধা যোজনা'য় স্টেশনটি সাজাতে ৫০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে ২০২১-২২ অর্থবর্ষে। বাকি ৫০ কোটি দেওয়া হবে পরের ধাপে। 

এই নতুন স্টেশনটিতে থাকবে অযোধ্যা রামমন্দিরের ছাপ, রামমন্দিরের মতোই গম্বুজ, শিখর, স্তম্ভ তৈরি করা হবে। রেলের দাবি, অযোধ্যা স্টেশনে নামলেই এক ঝলক মন্দির দর্শন হবে সকলের। উত্তর রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রথম পর্যায়ে ১ এবং ২ নম্বর প্ল্যাটফর্ম সংস্কার ছাড়াও স্টেশন বিল্ডিংয়ের বারান্দা, সিঁড়ি, এস্কেলেটার এবং প্যাসেজ ও ঢোকা-বেরোনোর পথের কাজ চলবে। এরপর বাকি স্টেশনের কাজ হবে। অযোধ্যায় রামমন্দির তৈরি হয়ে গেলে বা নির্মাণকাজ চলাকালীন সারা দেশ থেকেই ভক্তরা আসবেন অযোধ্যায়। ফলে দেশের সব প্রান্ত থেকেই ট্রেন আসবে এখানে। সেই কথা মাথায় রেখেই অযোধ্যা স্টেশন ঢেলে সাজানোর কাজ শুরু হয়েছে। ফলে যারা আসবেন, তাঁরা স্টেশনে নামার পরই রামমন্দিরের এক ঝলক দেখে নিতে পারবেন।



Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.