ব্রিগেড আমন্ত্রণে সংকটে গান্ধি পরিবার

২৮ ফেব্রুয়ারী বাম ও ধর্মনিরপেক্ষ দলগুলির জনসভা হবে ব্রিগেডে | বহু বিজেপি বিরোধী দল থাকলেও এর মূল আহ্বায়ক সিপিএম। বক্তাদের তালিকা অনুষ্ঠানের তিনদিন আগেও ঠিক করে উঠতে পারছে না বামেরা কারণ কংগ্রেস। ২০২১-এ শুধু বাংলায় ভোট হবে না, ভোট হবে আরও ৪ রাজ্যে তার মধ্যে অন্যতম কেরল। কেরলে কংগ্রেস জোটের বিরোধী বামেরা। এখানে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়ে থাকে এই দুই দলের মধ্যে। প্রায় একই সাথে ২০১৬ সালেও ভোট হয়েছিল এই দুই রাজ্যে। বাংলায় কংগ্রেস বাম জোট হওয়ার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছিল কংগ্রেস দলে। পাশাপাশি ত্রিপুরাতেও এই দুই দলে রেষারেষি চিরকালের ছিল কিন্তু বাংলার জোটের ফলে প্রায় সমস্ত কংগ্রেস দলটি ভেঙে যায়। এবং সমস্ত দলটিই যোগ দেয় বিজেপিতে। এই কারণে কংগ্রেসের হাইকমান্ড চিন্তিত।

অপরদিকে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী ব্রিগেড সভায় উপস্থিত থাকতে পারবেন না জানিয়েছেন সোনিয়া গান্ধি। পাশাপাশি রাহুলের উপরও চাপ সৃষ্টি করেছে কেরালার কংগ্রেস। তাঁদের বক্তব্য রাহুল গান্ধি বর্তমানে কেরালার সাংসদ এবং প্রধান বিরোধী বামেদের হারিয়েই রাহুল জিতেছিলেন। কাজেই ভোটের আগে বাম মঞ্চে উঠলে তার খারাপ প্রভাব পড়বে কেরলে। এ কারণে ধরেই নেওয়া যায় রাহুককেও ব্রিগেডে পাওয়া যাবে না। বামেরা প্রিয়াঙ্কাকে অন্তত মঞ্চে রাখার জন্য কংগ্রেস হাইকমান্ডের অনুরোধ করেছে, অন্দরের খবর দলের কোনও প্রবীণ নেতাকে পাঠানো হতে পারে কিন্তু সম্ভবত গান্ধিরা অনুপস্থিত থাকবেন ব্রিগেডে।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.