‘শুভেন্দুকে উৎখাত করতেই মমতা নন্দীগ্রামে এসেছে’, দাবি শিশিরের

 

অবশেষে কাঁথির শান্তিকুঞ্জে কী পদ্ম ফুটতে চলেছে? জল্পনা নিজেই উস্কে দিলেন কাঁথির বর্ষীয়ান তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী। বুধবারই তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। পাশাপাশি জানিয়ে দিলেন, ছেলে শুভেন্দুর হয় প্রচারেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি এবং আগামী ২৪ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভায় যোগ দেবেন। কাঁথির তৃণমূল সাংসদ কী তবে বিজেপির পথেই? এর উত্তরে অবশ্য সরাসরি কিছু বলেননি। তবে ছেলে শুভেন্দুর সুরেই প্রশ্ন তুললেন, ‘কে বলেছে তৃণমূলে আছি? তৃণমূল বলে কোনও দল আছে নাকি?’ পাশাপাশি বললেন, ‘বাবা হয়ে অবশ্যই চাইব ছেলেই জিতবে’। 


দীর্ঘদিন চুপ থাকার পর এদিন তৃণমূল নেত্রীকে তীব্র আক্রমণ করেন শিশির অধিকারী। তাঁর তোপ, মমতার কেন্দ্র ভবানীপুর, ও তো জাম্প করে নন্দীগ্রামে এসেছে। শুভেন্দুকে উৎখাত করতেই ও (মমতা) পিছনে পিছনে এসেছে নন্দীগ্রামে। সুর আরও চড়িয়ে শিশিরবাবু বলেন, ‘মমতা যা যা করছে সেটা এই জেলার পক্ষে লজ্জা, নন্দীগ্রামের পক্ষে লজ্জা’। শিশিরবাবুর দাবি, মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় প্রথমে দাবি করলেন চার-পাঁচজন তাঁকে ধাক্কা মেরেছে। পরে বললেন গাড়ির ধাক্কায় তাঁর আঘাত লেগেছে। আর এমন ধাক্কা লাগলো যে এসএসকেএম একেবারে পায়ে প্লাস্টার করে ছেড়ে দিল? এমনকি হুইল চেয়ারে ঘুরতে হচ্ছে। আর আমরা বসে বসে সিনেমা দেখছি। উল্লেখ্য, শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর দীর্ঘদিন নিরব ছিলেন তাঁর বাবা শিশির অধিকারী। কিন্তু দিন কয়েক আগে বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় শান্তিকুঞ্জে গিয়ে শিশিরবাবুর সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপরই তিনি মুখ খোলায় রাজনৈতিক মহলে শোড়গোল পড়ল।



Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.