মায়ানমারে সেনার গুলিতে নিহত আরও ২০ গণতন্ত্রকামীর


গণতন্ত্রে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে উত্তাল মায়ানমার। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রোজই রক্ত ঝরছে। এই পরিস্থিতিতে মায়ানমারের হালাইনথ্যায়া শহরে চিনের অর্থে তৈরি একটি কারখানায় আগুন লাগে। এর পরই ২০ জন সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদকারীকে হত্যা করেছে সে দেশের সেনাবাহিনী। রাজনৈতিক বন্দিদের সহযোগী এক সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়েছে, শহরের অন্যত্র আরও ১৬ জন প্রতিবাদকারীকে হত্যা করা হয়েছে। এক জন পুলিশকর্মীরও মৃত্যু হয়েছে সংঘর্ষে। নির্বাচিত জননেত্রী আন সান সু কি-র বিরুদ্ধে ১ ফেব্রুয়ারি সেনা অভ্যুত্থানের পর, সে দেশে সবচেয়ে রক্তাক্তময় দিন ছিল রবিবার। মায়ানমারে চিন দূতাবাসের তরফে কারখানায় আগুন লাগা নিয়ে একটি বিবৃতি পাঠিয়েছে। উল্লেখ্য, বেশকিছু অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি চিনের কাপড়ের কারখানায় আগুন লাগায়। এদিকে মায়ানমার সেনার কাছে অনুরোধ ছিল যে ওই কারখানায় বেশ কিছু কর্মীদেরকে বাঁচানোর জন্য। চিনা দূতাবাস থেকে বিবৃতিতে বলা হয়নি কতজন মারা গেছে। রবিবার প্রতিবাদীদের থামাতে গুলি, টিয়ার গ্যাস দিয়ে হামলা চালায় নিরাপত্তারক্ষীরা। ফলে মৃত্যু হয় অন্তত ২০ জনের। যেভাবে মায়ানমার সেনারা প্রতিবাদকারীদের গুলি করেছে তাতে প্রায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ।


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.