টলিউড তারকারা কী পেশায় সুরক্ষা চাইছেন?

সিনেমা জগতের অভিনেতা অভিনেত্রীরা কী টলি পাড়ায় অসুরক্ষিত? প্রশ্নটা এ কারণেই উঠছে যেহেতু তাঁরা সব হৈ হৈ করে রাজনৈতিক দলে যোগদান করছেন। কিন্তু কেন যাচ্ছেন? রাজনীতিতে যেতে পারবেন না এমন কোনও আপ্তবাক্য কোথাও লেখা নেই। কিন্তু মানুষ চিরকালই দেখে এসেছে সিনেমা কিংবা খেলার দুনিয়ার ব্যক্তিত্বরা নিজেদের পেশা নিয়েই থাকতে ভালোবসেন। যদিও সুনীল দত্ত কিংবা শত্রুঘ্ন সিনহার রাজনীতিতে এসেছেন মনপ্রাণ দিয়ে এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও হয়েছেন। এসেছেন আরও অনেকেই কিন্তু সেভাবে ‘ফুলটাইম’ রাজনীতিবিদ কেউই হতে পারেননি। অবশ্য তামিলনাড়ু এবং অন্ধ্রে প্রচুর সিনেমা ব্যক্তিত্ত্ব সরাসরি রাজনীতিতে এসেছেন এবং মুখ্যমন্ত্রীও হয়েছেন। 


কিন্তু এবার ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে বন্যার জলের মতো যুযুধান দুই দলে যোগ দিচ্ছেন টলিউডের অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। টলিউডের অন্দরমহলের খবর, বিগত বাম জমানা থেকেই টালিগঞ্জে রাজনৈতিক বাতাবরণ তৈরি হয়েছিল। পরে সেটা আরও প্রকট হয়। অনেকেই বলছেন, রাজনৈতিক লবি না করলে রঙিন পর্দায় ‘সুগোগ’ পাওয়া যায় না। শাসকদলেরই জোর এখানে বেশি। তবে ইদানিং বিজেপিরও লবি শক্তিশালী হয়ে উঠেছে টলি পাড়ায়। এখন প্রশ্ন উঠছে, রাজনৈতিক দলে না হয় যোগ দেওয়া হল, কিন্তু সেই দল যদি না জেতে? রসিক মানুষদের বক্তব্য, ওই কারণে এক বন্ধু তৃণমূলে অন্যজন বিজেপিতে আবার প্রেমিক বা মা তৃণমূলে তো অন্যজন বিজেপিতে। যাতে সুরক্ষিত থাকা যায় ভোট পরবর্তী সময়ে। এই তো হচ্ছে ভিতরে ভিতরে সবার চমৎকার যোগাযোগ আছে। ভাবনার কথা।  


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.