প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ কে ডি সিং ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ইডি হেফাজতে

চিটফাণ্ড কাণ্ডে দিল্লিতে গ্রেফতার তৃণমূলের প্রাক্তন রাজ্যসভার সাংসদ কে ডি সিংকে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ইডি হেফাজতে পাঠাল দিল্লির আদালত। চিটফাণ্ড সংস্থা অ্যালকেমিস্টের কর্ণধার তথা ব্যবসায়ী কে ডি সিংকে বুধবার সকালে গ্রেফতার করেছে এনফর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে তৃণমূলের টিকিটে রাজ্যসভার সাংসদ হন ব্যবসায়ী কে ডি সিং। তিনি ২০২০ সাল পর্যন্ত রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন। ইডি সূত্রে খবর, প্রায় ২ হাজার কোটি টাকার প্রতারণার মামলা ছিল তাঁর বিরুদ্ধে। 

২০১৬ সালে অ্যালকেমিস্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিল ইডি। তারপরই কে ডি সিংয়ের নানা বাড়ি ও অফিসে তল্লাশি চালিয়েছিল ইডি। দুটি টাকা পাচারের মামলায় সে বছর জুনে কে ডি সিংয়ের একটি কোম্পানির ২৩৯ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। ইডি জানিয়েছে, তল্লাশিতে তারা প্রচুর নথিপত্র পেয়েছে। দিল্লির অফিস থেকে উদ্ধা হয়েছে নগদ ৩২ লাখ টাকা ও ১০ হাজার ডলার। ২০১৮ সালে কলকাতা পুলিশ কে ডি সিং ও তাঁর ছেলে করণদীপ সিংয়ের বিরুদ্ধে জালিয়াতির মামলা দায়ের করে। তাঁদের অ্যালকেমিস্ট টাউনশিপ ইন্ডিয়া ও অ্যালকেমিস্ট হোল্ডিং কোম্পানির বিরুদ্ধে লাখ লাখ লোককে ঠকানোর মামলাও দায়ের হয়। প্লট ও ফ্ল্যাট বুকিংয়ের নামে বহু লোককে ডাহা ঠকিয়েছে তারা।

ইডির দাবি, অ্যালকেমিস্টের নামে বাজার থেকে তোলা বিপুল পরিমাণ টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে। নির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ হাতে পেয়েই কে ডি সিংকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে প্রিভেনশন অফ মানি লন্ড্যারিং আইনে মামলা হয়েছে। সূত্রের খবর, প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা বাজার থেকে তুলেছিল অ্যালকেমিস্ট, এর মধ্যে বেশিরভাগ টাকাই আমানতকারীদের ফেরত না দেওয়ার অভিযোগ ছিল। তদন্তে ইডি আধিকারিকরা জানতে পেরেছে এই টাকার বেশিরভাগ অংশই বিদেশে পাচার হয়েছে। এর আগে বিভিন্ন সময় কে ডি সিংকে বারবার জেরা করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগও উঠেছিল। 


Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.