দেগঙ্গায় বন্দুক হাতে মহিলাদের তাড়া করলেন তৃণমূল নেতার দাদা


প্রকাশ্য রাস্তায় হাতে বন্দুক নিয়ে তেড়ে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি, আতঙ্কে এদিক-ওদিক ছুটে পালাচ্ছেন গ্রামের মহিলা-পুরুষরা। না এটা কোনও সিনেমার দৃশ্য নয়, বরং রবিবার এই দৃশ্যই দেখল দেগঙ্গার গোঁসাইপুর গ্রাম। আর যিনি বন্দুক হাতে প্রকাশ্যে দাপাদাপি করলেন তিনি তৃণমূলশাসিত ওই গোঁসাইপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের দাদা। যার ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে ইতিমধ্যেই। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরেই এই ঘটনা। জানা যাচ্ছে, দীর্ঘদিন ধরেই ওই এলাকায় তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি আব্দুল রেজ্জাকের সঙ্গে পঞ্চায়েত প্রধান হুমায়ুন রেজা চৌধুরীর মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে। এই দ্বন্দ্বের জেরেই রবিবার বন্দুক হাতে তেড়ে যান  হুমায়ুন রেজা চৌধুরীর দাদা হাসান রেজা চৌধুরী। 

অপরদিকে এদিন সকালেই পঞ্চায়েত প্রধানের দলবল এলাকারই এক তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে চড়াও হয়েছিল। মহিলাদের হুমকিও দেওয়া হয়। এর জেরেই তুমুল অশান্তি বাধে এলাকায়। তখনই একটি এয়ারগান নিয়ে মহিলাদের দিকে তেড়ে যান পঞ্চায়েত প্রধানের দাদা। যার ভিডিও ভাইরাল হয়। পরে ঘটনাস্থলে যায় দেগঙ্গা থানার পুলিশ। এই ব্যাপারে তৃণমূল নেতা তথা পঞ্চায়েত প্রধান হুমায়ুন রেজা চৌধুরী সাফাই দিয়েছেন, পাখি মারার বন্দুক নিয়ে দাদা ওই কাজ করে ফেলেছে। যদিও পুলিশের দাবি, কোনও পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলেই পুলিশ ব্যবস্থা নেবে বলে জানানো হয়েছে। তবে গোটা ঘটনায় এলাকায় চাপা উত্তেজনা রয়েছে।


Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.