‘বাংলার মেয়ের হাতেই বাংলা থাকুক’, উত্তরবঙ্গে আর্জি অভিষেকের

বিগত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে একটিও আসন পায়নি শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন, তাই মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবার ছুটে গিয়েছেন উত্তরবঙ্গে। এবার গেলেন দলে নম্বর-টু তথা তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার জনসভা করলেন জলপাইগুড়ির নাগরাকাটায়। মূলত অবাঙালি অধ্যুষিত এলাকায় নিজের ভাষণের সিংহভাগই বললেন হিন্দিতে। পাশাপাশি একুশের ভোটের লক্ষ্যে তৃণমূলের নতুন স্লোগানটিও আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করলেন। এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, ‘বাংলার মেয়ের হাতেই বাংলা থাকুক, বহিরাগতরা নিপাত যাক’। অর্থাৎ বহিরাগত তত্ত্বেই বিজেপিকে বিঁধলেন তৃণমূলের যুবরাজ। নাগরাকাটার সভামঞ্চ থেকেই তিনি বিজেপিকে খোলা চ্যালেঞ্জ দিলেন, ‘সাগর থেকে পাহাড় মানুষের রায়, বাংলা নিজের মেয়েকে চায়। দিল্লির অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়বেন একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। ক্ষমতা থাকলে পড়ে নাও’। 

তিনি আরও বলেন, ‘কাকে ভোট দেবেন, সেটা আপনাদের সিদ্ধান্ত। আমরা কিন্তু মাথা নত করে ৫ বছর কাজ করব। আপনারা কি চান, বাংলার মেয়ে দিল্লির কাছে মাথা নত করুক? বহিরাগতদের বশ্যতা স্বীকার করুক বাংলার মেয়ে, এটাই কি চান?’ উল্লেখ্য, মহিলারা বরাবরই তৃণমূলের ভোটব্যাঙ্ক। এবার সেটাই আরও ভালোভাবে কাজে লাগাতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াই সামনে আনতে চাইছে শাসকদল। এমনকি সুকৌশলে এদিন ‘জয় সিয়া রাম’ বলেও মহিলাদের আবেগ উস্কে দিলেন। তিনি বলেন, ‘জয় শ্রী রাম বলার সময়েও সীতার কথা উল্লেখ করে না বিজেপি’। তবে শুধু মহিলাদের মন জয় করাই নয়, এদিনের ভাষণে তিনি কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকেও তুলধোনা করেছেন। কৃষক আন্দোলন থেকে শুরু করে কৃষকদের অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়ার অমিত শাহর ঘোষণার কটাক্ষও শোনা গেল অভিষেকের কথায়। তিনি বলেন, ‘কৃষকদের ১৮ হাজার টাকা দিয়ে স্বভিমান কিনতে চাইছে বিজেপি’। এরপরেই তাঁর তোপ, ২০১৬-তে ২১১ আসন পেয়েছিলাম, এবার ২০২১-এ ২৫০ আসন পাবো।


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.