ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে করোনার ‘ভারতীয়’ স্ট্রেন

অবশেষে মহারাষ্ট্র, কেরলের নতুন করে সংক্রমণ বাড়ার কারন উদ্ধার করলো অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্স বা এইমস। সংস্থার প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে বেড়ে যাওয়া সংক্রামণের কারণ কোভিড-১৯ ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন বা প্রজাতি। তিনি আরও জানান, ভারতে সঙ্কটের মেঘ কেটে গিয়েছে বলে ভাবলে ভুল হবে। কারণ এই ভারতে খুঁজে পাওয়া করোনার নতুন প্রজাতি আরও ভয়ানক এবং এর ক্ষতি করার ক্ষমতা অনেক বেশি। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, প্রথমত এই নতুন স্ট্রেনটি খুব দ্রুত ছড়িয়ে পরে, দ্বিতীয়ত শরীরে প্রবেশ করলে নানা রকম ক্ষতি করতে পারে। যা আগের ভাইরাসের চেয়ে বেশি শক্তিশালী। পাশাপাশি জানা গিয়েছে, এই নতুন স্ট্রেনটি যারা পুর্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের শরীরেও বাসা বাধতে পারে। এমনটা শোনা যাচ্ছিল একবার করোনা আক্রান্ত হলে আর ফের হবে না কারণ শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করে। কিন্তু সেই ধারণাকে নস্যাৎ করে জানানো হচ্ছে করোনার নতুন স্ট্রেনে করোনার অ্যান্টিবডি কাজ করবে না। আপাতত দেশে ২৪০ জনের শরীরে করোনার নতুন ভারতীয় সংস্করণের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আর বর্তমানে ভারতে উর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণের পিছনেও এই নতুন স্ট্রেন রয়েছে বলেই মনে করছে দিল্লির এইমস। মহারাষ্ট্র ছাড়াও কেরল, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তীসগঢ় এবং পঞ্জাবে গত কয়েক দিন ধরে দৈনিক সংক্রমণ বেড়েছে। 

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.