প্রার্থী নিয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত, কোথাও জ্বলল আগুন, কোথাও ঝুলল তালা

প্রার্থী নিয়ে বিড়ম্বনা বেড়েই চলেছে বিজেপিতে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ১৫৭ জনের তালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপি, সবমিলিয়ে প্রায় অধিকাংশ কেন্দ্রেই প্রার্থীর নাম জানিয়ে দিল রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল। কিন্তু প্রার্থীদের নিয়ে অসন্তোষ কাঁটা হয়েই বিধছে গলায়। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে ক্ষোভ প্রশমিত করতে প্রার্থীও বদল করতে হচ্ছে বিজেপিকে। বৃহস্পতিবার তালিকা প্রকাশের পরই উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন আসনে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। কোথাও জ্বলল আগুন, কোথাও পথ অবরোধ, কোথাও পার্টি অফিসে তালা ঝুলিয়ে দিল বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। জায়গায় জায়গায় পুলিশকে হস্তক্ষেপ করতে হল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে। রানাঘাট উত্তর-পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী পার্থসারথি চট্টোপাধ্যায়ের নাম ঘোষণার পর থেকেই বিজেপির একাংশ ক্ষোভে ফেটে পড়েন। রাত পর্যন্ত রানাঘাট দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলা কার্যালয়ের বাইরে রাতভর চলে বিক্ষোভ। শুক্রবার সকাল থেকে কার্যালয়ের সমস্ত দরজায় তালা ঝুলিয়ে দলীয় পতাকা সঙ্গে নিয়ে কর্মী সমর্থকরা বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সামিল হয়েছেন।

পুরাতন মালদার সাহাপুরে দলীয় কার্যালয় ভাঙচুর করেন স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা। পরে মালদা-নারগোলা রাজ্য সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ শুরু করে তাঁরা। এখানকার প্রার্থী গোপাল সাহা দুর্নীতিগ্রস্ত বলেই দাবি বিজেপি কর্মী সমর্থকদের। আসানসোলের পাণ্ডবেশ্বরে জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে টিকিট দিতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা। পার্টি অফিসে তালা ঝুলিয়ে চলে বিক্ষোভ, কোথাও কোথাও অবরোধও হয়েছে রাতের দিকে। প্রার্থী নিয়ে বিক্ষোভে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় জলপাইগুড়ি। ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সৌম্যরুপ মণ্ডলের নাম ঘোষণা হওয়ার পর শুক্রবার সকালে ইসলামপুর দাড়িভিট এলাকায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এলাকার বিজেপি সমর্থকরা। দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানো হয়েছে আর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীর ছবিতেও কালি মাখিয়ে দেয় তাঁরা। বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন দাড়িভিটে পুলিশের গুলিতে মৃত ছাত্র তাপস ও রাজেশের পরিবারের লোকজন।


পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝে রাতারাতি উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ারে প্রার্থী বদল করে বিজেপি নেতৃত্ব। এতে বাড়তি অক্সিজেন পেয়ে যায় অন্যান্য বিধানসভা কেন্দ্রের বিক্ষুব্ধরা। আলীপুরদুয়ারে এবার বিজেপি টিকিট দিয়েছিল ভারত সরকারের প্রাক্তন অর্থনৈতিক উপদেষ্টা অশোক লাহিড়ীকে। বিক্ষোভের জেরে রাতারাতি তাঁকে সরিয়ে প্রার্থী করা হয়েছে স্থানীয় নেতা সুমন কাঞ্জিলালকে। বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে, অশোক লাহিড়ীকে সম্ভবত উত্তরবঙ্গের বালুরঘাট থেকে প্রার্থী করা হবে। এই আসনে প্রার্থীর নাম এখনও ঘোষণা করেনি বিজেপি।




Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.