গোয়ার সঙ্গে ড্র, প্লে অফের দৌড়ে পিছোল ইস্টবেঙ্গল

এই ম্যাচ জিতলে আইএসএলের প্লে অফে জায়গা করে নেওয়া বেশ সহজ হত এসসি ইস্টবেঙ্গলের কাছে। কিন্তু দুর্বল আক্রমণের জন্য ম্যাচে আধঘন্টার বেশি সময় এফসি গোয়ার দশ জনকে পেয়েও জয় তুলে নিতে ব্যর্থ হল লাল-হলুদ ব্রিগেড। এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়েও ১-১ গোলে ড্র করেছে ইস্টবেঙ্গল। ফলে শুক্রবারের ম্যাচ থকে তিন পয়েন্ট তুলতে না পারায় লিগের দৌড়ে কার্যত ছিটকে গেল ফাওলারের দল।

ম্যাচের প্রথম মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল লাল-হলুদ শিবিরের কাছে। নারায়ণ দাসকে গোয়ার পেনাল্টি বক্সে ফেলে দেওয়া গোলের দরজা প্রায় খুলে গিয়েছিল। তবে স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয় পিলকিংটন। তারই খেসারত দিতে হল এসসি ইস্টবেঙ্গলকে। তেকাঠির নিচে দাঁড়িয়ে গোয়ার ফুটবলারদের একাধিক শট বাঁচিয়ে কার্যত দুর্গরক্ষা করেছেন দেবজিৎ। ৩৯ মিনিটে স্প্যানিশ স্ট্রাইকার ইগর অ্যাঙ্গুলার কাছে নিরুপায় হয়ে পড়েন দেবজিৎ। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঠান্ডা মাথায় গোল করে এগিয় দেয় এফসি গোয়াকে। 

দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের চেষ্টায় আক্রমণে ঝাঁঝ বাড়ান ফাওলারের ছেলেরা। অবশেষে ৬৫ মিনিটে পিলকিংটনের ফ্রিকিক থেকে গোয়া গোলরক্ষক ধীরজ সিংহের ভুলে সমতা ফেরান ড্যানি ফক্স। এক মিনিটের মধ্যেই দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লেন গোয়ার অধিনায়ক এডু বেদিয়া। এরপর বাকি ম্যাচে পুরোটাই দাপিয়েছে রবি ফাওলারের বাহিনি। বাঁ দিক থেকে একের পর এক আক্রমণ তুলে আনছিলেন ব্রাইট এনোবাখার। কিন্তু কাজের কাজ হচ্ছিল না। চাপ বজায় রেখেছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। ফলে ১-১ গোলে ড্র করেই মাঠ ছাড়তে হল ফাওলারের এসসি ইস্টবেঙ্গলকে। এই ম্যাচে ড্রয়ের পর লিগ টেবিলের কোনও পরিবর্তন হল না। ১৪ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট পেয়ে দশ নম্বরেই রইল ইস্টবেঙ্গল। অন্যদিকে সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে ২১ পয়েন্ট পেয়ে তিন নম্বরে রয়েছে এফসি গোয়া। 


Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.