মুম্বইয়ের কাছে আটকে প্লে অফের দৌড়ে পিছল এসসি ইস্টবেঙ্গল

টানা সাত ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর মুম্বই সিটির কাছে ১-০ গোলে হারল এসসি ইস্টবেঙ্গল। তবে এদিনের ম্যাচে লাল-হলুদ শিবিরের দুরন্ত স্ট্রাইকার ব্রাইট এনোবাখারকে ছাড়াই প্রথম একাদশের দল সাজিয়েছিলেন কিংবদন্তি কোচ রবি ফাওলার। তাঁকে দ্বিতীয়ার্ধে নামিয়ে আক্রমণে ঝড় তুললেও গোলের দরজা খুলতে পারেনি ফাওলারের দল। প্রথমার্ধে লড়াই করলেও ইস্টবেঙ্গলের থেকে অনেক বেশি আক্রমণাত্মক ভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করেছিল লোবেরার মুম্বই সিটি এফসি। আক্রমণ প্রতি আক্রমণের মধ্যে বেশ কয়েক দোবজি দস্তানায় দুর্গ রক্ষা হয় এসসি ইস্টবেঙ্গলের।
তবে ২৭ মিনিটে সাই গড্ডার্ডের কর্নার ইস্টবেঙ্গলের রক্ষণের প্রতিহত হলেও, ফিরতি বলকে ফলের উদ্দেশে পাস বাড়ান হুগো বোউমাস। উচ্চতাকে কাজে লাগিয়ে বোউমাসের বাড়ানো বল হেড দিয়ে ইস্টবেঙ্গলের জালে জড়ান মুম্বইয়ের মোর্তাদা ফল। এরপর বিক্ষিপ্ত কিছু সুযোগ তৈরি হয়েছিল দুই দলের সামনেই। কিন্তু স্কোরলাইনের কোন পরিবর্তন হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দুটি পরিবর্তন নিয়েছিলেন রবি ফাওলার। সুরচন্দ্র ও অঙ্কিতের পরিবর্তে মাঠে নামেন রফিক ও রানা ঘরামি। ৬৪ মিনিটে স্টেইম্যানের পরিবর্তে আসেন তারকা স্ট্রাইকার ব্রাইট। তিনি মাঠে আসতেই মুম্বইয়ের ডিফেন্ডাররা ব্রাইটকে চক্রব্যূহে বন্দি করেছিলেন। তার মধ্যেও কয়েকবার নাইজেরীয়ান স্ট্রাইকার মাথাচাডা় দিয়ে উঠেছিলেন। তবে কেন তাঁকে এত পরে মাঠে নামানো হয়েছিল, সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন লাল হলুদ শিবিরের সমর্থকরা। ম্যাচ শেষে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে সার্জিও লোবেরার মুম্বই। এদিনর ম্যাচ জিতে ১২ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শীর্ষে আবস্থান আরও মজবুত করল তাঁরা। অন্যদিকে ১৩ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট পেয়ে দশ নম্বরেই থাকল এসসি ইস্টবেঙ্গল।

Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.