প্রজাতন্ত্র দিবসে হিংসা নিন্দনীয়, ভাষণে বললেন রাষ্ট্রপতি

লালকেল্লার তাণ্ডবের ঘটনা উঠে এল রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণেও। শুক্রবার সংসদের যৌথ অধিবেশনে কোবিন্দ বলেন, গত কদিনে জাতীয় পতাকা এবং প্রজাতন্ত্র দিবসের মতো পূণ্যদিনকে অবমাননা করা হয়েছে। সংবিধান আমাদের মতপ্রকাশের স্বাধীনতা দিয়েছে। সেই সংবিধানই আমাদের শেখায়, গুরুত্ব দিয়ে আইন মেনে চলতে হবে। 

নতুন কৃষি আইনের ফলে ১০ কোটিরও বেশি ক্ষুদ্র কৃষক উপকৃত হয়েছেন বলেও তাঁর দাবি। কৃষকদের কোনও অধিকার এই আইনে খর্ব করা হয়নি। বরং তাতে অনেক নতুন সুযোগ আসবে তাদের কাছে। অন্যদিকে, কৃষকদের দাবির সমর্থনে ১৯টি বিরোধী দল রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করে বিজয় চকে ধর্না দিচ্ছে। কৃষকদের আন্দোলন ছাড়াও দেশের আর্থিক দুর্দশা, কর্মচ্যুতি ও অন্য ইস্যুতেও তাদের প্রতিবাদ।

রাষ্ট্রপতি বলেন, করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র প্রশংসনীয় কাজ করেছে। পৃথিবীর বৃহত্তম টিকাকরণের কাজ চলছে ভারতে। করোনার দুটি টিকাই ভারতে তৈরি হয়েছে। এটা গর্বের বিষয়। করোনার টিকা ভারত অন্য দেশেও পাঠিয়েছে। কেন্দ্র সময়মতো সিদ্ধান্ত নেওয়ার ফলে বহু প্রাণ বেঁচেছে। এখন করোনা সংক্রমণ কমের দিকে। সুস্থতার হারও বাড়ছে। করোনায়. প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় ও ৬ জন সাংসদ মারা গিয়েছেন। অতিমারীর মধ্যে এই অধিবেশন অত্যন্ত জরুরি ছিল। কেন্দ্রে আয়ুষ্মান ভারত এখন ২৪ হাজার হাসপাতালে পাওয়া যাচ্ছে। ৭ হাজার কেন্দ্রে স্বল্পমূল্যে ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। তাঁর দাবি, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিদের বিষয়টি সরকারের কাছে অগ্রাধিকার। কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পে ১,১৩,০০০ কোটি টাকা সরাসরি কৃষকদের অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছে। দেশ বিদেশি বিনিয়োগের গন্তব্য হয়ে উঠেছে। 


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.