লালকেল্লায় তাণ্ডবের পিছনে পাঞ্জাবি অভিনেতার উস্কানি, উঠছে অভিযোগ

মঙ্গলবার লালকেল্লায় ঢুকে পতাকা লাগানোর ঘটনায় অভিযুক্ত পাঞ্জাবী অভিনেতা দীপ সিন্ধু কবুল করেছেন, তিনি ঘটনার সময় সেখানে ছিলেন। তিনি বলেছেন, তাঁর সমর্থকরা জাতীয় পতাকা নামাননি, তুলেছেন শিখদের পবিত্র নিশান সাহিব। তাঁরা কিষাণ মজদুর একতার নামে স্লোগানও দিয়েছিলেন। এটা ছিল প্রতীকী প্রতিবাদ। ফেসবুকে দীপ জানিয়েছেন, এটা কোনও পরিকল্পিত ঘটনা নয়, কৃষকদের স্বতঃস্ফুর্ত ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। অন্যদিকে, কৃষক নেতারা বলছেন, কৃষকরা লালকেল্লায় যেতে চাননি। দীপই তাদের উত্তেজিত করে নিয়ে গিয়েছিলেন। যোগেন্দ্র যাদব বলেছেন, দীপ এবং গ্যাংস্টার-রাজনীতিক লাখা সিধানাই এই ঘটনার পিছনে। তারা আগের রাতেও সিংঘু সীমান্তে কৃষকদের উস্কানি দিয়েছিল। লালকেল্লায় দীপকে মাইক হাতেও দেখা গিয়েছে। এনিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত। 

কে এই দীপ সিন্ধু? পাঞ্জাবের মুক্তসর জেলার বাসিন্দা দীপ আইন পড়েছেন। তারপর বনে যান মডেল। ২০১৫ সালে তার প্রথম ছবি রমতা যোগী মুক্তি পেয়েছিল। ২০১৮ সালে জোড়া দশনম্বরী ফিল্মেই তার জনপ্রিয়তা বাড়ে। ২০১৯ সাল সানি দেওলের নির্বাচনী প্রচার টিমে ছিলেন দীপ। সানি মঙ্লবারই জানিয়েছেন, তিনি ও তাঁর পরিবারের কেউ দীপের সঙ্গে যুক্ত নয়। শিখস ফর জাস্টিস সংক্রান্ত একটি মামলায় দীপ এবং তাঁর ভাই মনদীপকে এ মাসের গোড়ায় ডেকে পাঠিয়েছিল এনআইএ। 

কৃষক নেতারা জানাচ্ছেন, সোমবার রাতে থেকেই কৃষক আন্দোলন অন্য পথে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। তা পাঞ্জাবি ওয়েব চ্যানেলেও লাইভ দেখানো হয়েছে। সেখানে দীপ এবং লাখা বক্তৃতাও করেছিলেন। তাঁরা কৃষকদের পুলিশ নির্দিষ্ট আউটার রিং রোডের বদলে রিং রোডের দিকে যাওয়ার দাবি তুলছিলেন। কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটি তেমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ৪১টি কৃষক সংগঠনের যৌথমঞ্চ সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা জানিয়েছে, সিন্ধুদের মতিগতি দেখে গো়ড়া থেকেই তাদের আলাদা করে দেওয়া হয়েছিল। 

মঙ্গলবারের ওই সংঘর্ষে ১৫৩ জনেরও বেশি পুলিশকর্মী জখম হয়েছেন। ২ জন রয়েছেন আইসিইউয়ে। ট্র্যাক্টর উল্টে মারা গিয়েছেন এক বিক্ষোভকারী। কৃষক ইউনিয়নগুলি জানিয়েছে, তাদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চলবে। লালকেল্লার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মোতায়েন করা হয়েছে বাড়তি প্রায় ২ হাজার পুলিশ ও আধা সেনা জওয়ানকে। 



Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.