সকালে বিধায়ক পদ, বিকেলে তৃণমূল ছাড়লেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

 


তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর দেখানো পথেই হাঁটছেন পদত্যাগী বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। আগেই মন্ত্রীত্ব ছেড়েছিলেন, শুক্রবার সকালে জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিধায়ক পদেও ইস্তফা দিলেন তিনি। এরপর বিকেলে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাথমিত সদস্যপদ থেকেই ইস্তফা দিলেন রাজীব। ফলে তাঁর বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা আরও উজ্জ্বল হল বলেই মনে করছেন রাজ্যের রাজনৈতিক মহল। 

 শুক্রবার সকালেই তিনি বিধানসভায় হাজির হয়ে যান। জানা যাচ্ছে বিধানসভার অধ্যক্ষের সামনে বসেই তিনি ইস্তফাপত্র লেখেন। এর তাঁর কাছে ইস্তফাপত্র দিয়ে বেরিয়ে আসেন রাজ্যের প্রাক্তন বনমন্ত্রী। বিধানসভা ভবন থেকে বের হওয়ার সময় তাঁর হাতে ছিল তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি।  এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘দলনেত্রী আমার কাছে মায়ের মতো। আগেও মাথার পিছনে ওঁর ছবি থাকত। আগামী দিনেও ছবি কাছে রাখব’। পরে তিনি আরও বলেন, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছি। অধ্যক্ষ মহাশয়ের হাতেই ইস্তফাপত্র জমা দিয়েছি। তাঁর কিছু প্রশ্ন ছিল, আমিও তার উত্তর দিয়েছি। স্পিকার বলেছেন, সবটাই আইন অনুযায়ী পরীক্ষা করে দেখবেন। তার পর সিদ্ধান্ত জানাবেন’। স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ ১০ বছর ওঁর সহযোগিতা পেয়েছি। একই সঙ্গে বিধানসভার সহকর্মী এবং বাংলার মানুষকে ধন্যবাদ জানাই। ১০ বছর ধরে সকলের ভালবাসা পেয়েছি। কৃতজ্ঞতা জানাই দলনেত্রীকে। বিধায়ক হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন উনি। ওঁর কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকব। ডোমজুড়ের শিশু থেকে বৃদ্ধ, যাঁদের ভালবাসা পেয়েছি, বিগত ১০ বছর ধরে যাঁদের জন্য কাজ করেছি, তাঁদের সকলকে কৃতজ্ঞতা জানাই। কথা দিচ্ছি, আগামী দিনেও ডোমজুড় বিধানসভা মানুষের পাশে থাকব। মানুষের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে কাজ করে যাব’। তবে দলের সদস্যপদ নিয়ে তিনি বলেন, এখনও দলের সদস্য আমি। একটা মানসিক প্রস্তুতির দরকার ছিল। মন্ত্রিসভা ত্যাগের পরেও ৭ দিন অপেক্ষা করেছিলাম। তবে তিনি এও বলেন, নির্দল হয়েও কাজ করা যায়। শেষ পর্যন্ত কী করব, আগামী কাল সিদ্ধান্ত জানাব আপনাদের। অপরদিকে, হাওড়া যুব তৃণমূল সভাপতি অনুপম ঘোষ পদত্যাগ করলেন। তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন। অনুপম ঘোষ অরুপ রায় ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত হাওড়ায়। ফলে তাঁর সরকার ও দলের সমস্ত রকম পদ থেকে পদত্যাগ নতুন করে জল্পনার জন্ম দিল। 

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.