অশান্ত সিংঘু, পুলিশের লাঠি, কাঁদানে গ্যাস, জমায়েত বাড়ছে কৃষকদের

ফের অশান্ত হয়ে উঠল সিংঘু সীমান্ত। শুক্রবার দুপুরে কৃষকদের সঙ্গে স্থানীয় বলে দাবি করা কিছু লোকের সংঘর্ষ শুরু হয়। তা ঠেকাতে পুলিশকে লাঠি, গ্যাস চালাতে হয়। সেখানেই কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে গত ২ মাস অবস্থান করছেন কৃষকরা। পুলিশ জানিয়েছে, তলোয়ারের আঘাতে আহত হয়েছেন আলিপুর থানার ইনচার্জ। হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিন সেখানে জড়ো হয় কিছু লোক। তারা কৃষকদের জায়গা ছেড়ে দিতে বলে। তারা কৃষকদের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে। তখনই হাতাহাতি, সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। ছোঁড়া হয় পাথর। স্থানীয়রা কৃষকদের তাঁবু ভাঙচুর শুরু করে দেয়। আগেই কৃষক নেতারা অভিযোগ করেছিলেন, এক বিজেপি বিধায়কের লোকজনই হামলার পিছনে। 

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার রাত থেকে হরিয়ানার বিভিন্ন প্রান্তের প্রচুর কৃষক সীমান্তের দিকে রওনা দিয়েছেন। ঝিন্দ, কইথাল, হিসার, ভিওয়ানি, সোনিপথ থেকে তাঁরা পৌঁছচ্ছেন টিকরি, সিংঘু ও গাজিপুরে। গাজিপুরে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের বহু কৃষক এসে জড়ো হয়েছেন। তাঁরা মিরাট-দিল্লি সড়কে বসে রয়েছেন। তাঁরা উত্তরপ্রদেশের বাগপত, মিরাট, বিজনৌর, মুজফফরনগর, মোরাদাবাদ, বুলন্দশহরের বাসিন্দা। সংখ্যায় কয়েক হাজার। গাজিয়াবাদ প্রশাসনের হুঁশিয়ারি অগ্রাহ্য করে রাকেশ টিকায়েতের আবেদনে সাড়া দিয়ে তাঁরা আসছেন। বৃহস্পতিবার অবস্থানরত কৃষকদের সংখ্যা কমে গেলেও এখন তা আবার বেড়ে গিয়েছে বহু গুণ। 


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.