নীতি আয়োগের বৈঠকে গড়হাজির মমতা, কেন্দ্র-রাজ্য সমন্বয়ে জোর মোদির


শনিবার ছিল নীতি আয়োগের পরিচালনা পরিষদের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। এবং জল্পনা সত্যি করেই বৈঠকে যোগ দিলেন না রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন দেশের সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের লেফটেন্যান্ট গভর্নরদের নিয়ে নীতি আয়োগের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর এই বৈঠকেই তিনি বার্তা দিলেন কেন্দ্র-রাজ্য সমন্বয়ের জোর দেওয়ার ওপর। তিনি বলেন, ‘কেন্দ্র ও রাজ্য এক সঙ্গে কাজ করলেই হবে উন্নয়ন, এগিয়ে যাবে দেশ’। রাজনৈতিক মহলের অভিমত, প্রধানমন্ত্রী ঘুরিয়ে বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই। কারণ এদিনের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যখন দেশের সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের লেফটেন্যান্ট গভর্নররা যোগ দিয়েছেন, সেখানে বৈঠকে থাকলেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। ফলে কেন্দ্র-রাজ্য সমন্বয়ের বিষয়ে জোর দিতে বলে প্রধানমন্ত্রী পরোক্ষে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকেই খোঁচা দিলেন। যদিও এটা প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার নীতি আয়োগের বৈঠক এড়িয়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, এর আগে এই রাজ্যে প্রচার ও দলীয় কর্মসূচিতে এসে বারেবারেই ‘ডাবল ইঞ্জিন সরকার’ চেয়ে জোরালো সাওয়াল করে গিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বাংলার বিজেপি নেতা থেকে শুরু করে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া তৃণমূল নেতারাও আহ্বান জানাচ্ছেন কেন্দ্র ও রাজ্যে বিজেপি সরকার (ডাবল ইঞ্জিন সরকার) চাই। এর রেশ ধরেই শনিবার নীতি আয়োগের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘দেশের সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্য ছোঁয়ার জন্য কেন্দ্র এবং রাজ্যগুলির সমন্বয় অতি গুরুত্বপূর্ণ’। এছাড়াও তিনি কৃষি পরিকাঠামোর উন্নয়ন, মানব সম্পদ উন্নয়ন, স্বাস্থ্য পরিকাঠামো এবং শিল্পের বিকাশ নিয়েও আলোচনা হয় এদিনের বৈঠকে।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.