লড়াই শুরু শনিবার থেকেই

নির্বাচন কমিশনার দিন ধার্য্ করে দেবার সাথে সাথেই ভোট লড়াইয়ের চূড়ান্ত প্রস্তুতিতে নেমে পড়লো বঙ্গ রাজনৈতিক দলগুলি | এবারে প্রথম ঠিক হবে বিভিন্ন কেন্দ্রের প্রার্থী, তারপরই এলাকা ভিত্তিক প্রচার | এবারে ৮ পর্বের ভোটে লক্ষাধিক বুথ করা হয়েছে এবং বুথকর্মী ঠিক করাটাই প্রধান কাজ | রাজনৈতিক মহলের ঢারণা ১৯৬৭ র মতো কঠিন লড়াই এবারের ভোট যেখানে টুসকি দিয়ে কেউ বলতে পাবেন না কে এগিয়ে কে পিছিয়ে | তিন শক্তির লড়াই হলেও প্রচার মাধ্যমের নজরে কিন্তু তৃণমূল বনাম বিজেপির লড়াই | কিন্তু স্ট্রাটেজি কি হতে পারে?


সর্ব ভারতীয় দল বিজেপি জোর দিচ্ছে প্রচারের উপর | প্রধানমন্ত্রী থেকে দেশের বড় নেতাদের দফায় দফায় নিয়ে আসা হচ্ছে বাংলায় | পাশাপাশি সংঘ পরিবারও কাজ করছে এলাকায় এলাকায় | শেষে থাকে প্রার্থী নির্বাচন | এটি একেবারেই কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ঠিক করবে | সংগঠনশীল দল বিজেপি কাজেই 'অমুকের ঘনিষ্ট' ধরণের কাছের লোককে পাত্তা না দিয়ে তারা জোর দিচ্ছে কাজের লোকের উপর | তৃণমূল ১০ বছর ক্ষমতায় আছে কাজেই এলাকা ভিত্তিক অবস্থানের ধারণা তাদে আছে | এবারেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই তাদের মুখ |


তবে 'দিদি' প্রচার বাদ দিয়ে 'বাংলার মেয়ে'র স্ট্রাটেজি তারা নিচ্ছে | অন্যদিকে বাম ও কংগ্রেস সহ আব্বাসের দলের জোট কাদের ভোট কাটে সেটাও নজরে ত্থাকবে | সিপিএম সূত্রে জানা গেলো এবারে তারা তারুণ্যনের উপর জোর দেবে | বিগত লোকসভায় তাদের ভোট শতাংশ নেমে গিয়েছিলো 7% এ, এবারে কংগ্রেসের সাথে জোট করে এবং তরুণ প্রার্থীর স্ট্রাটেজিকে কাজে লাগিয়ে সেই শতাংশ ২০ % নিয়ে যাবে | কি হবে পরের কথা কিন্তু ভোট শতাংশ এবং ভাগাভাগি এবারের ভোটে আসন বাকি ঠিক করবে | কাজটা সত্যি কঠিন সবারই কাছে ফলে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই এবারে ১৯৬৭ র মতোই |

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.