স্বামীর হাতে খুন বধূ, মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে জখম শাশুড়িও

পুরোনো পারিবারিক বিবাদের জেরে স্বামীর হাতে খুন হলেন যুবতী বধূ। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে তাঁর মাও গুরুতর জখম হলেন। সোমবার রাতে এই ঘটনাটি ঘটে কোচবিহারের বক্সিরহাট থানার কুড়িতলা গ্রামে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত বধূর নাম অঙ্কিতা সরকার (২৩), এবং জখম মহিলার নাম সান্ত্বনা সরকার। ঘটনার পর থেকেই অঙ্কিতার স্বামী গণেশ পলাতক। তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।
মৃতার খুড়তুতো ভাই সৌম্যজিৎ সরকার জানান, কয়েক বছর আগে গণেশ নামে এক যুবকের তাঁর বোনের বিয়ে হয়েছিল। এরপর তাঁদের সম্পর্কে ফাটল ধরে। এমনকি গণেশের নামে মামলা হয়েছিল, যার জেরে সে জেলও খেটেছে। সম্প্রতি সে জামিনে মুক্তি পায়। গণেশের বাড়ি অসমের রঙ্গিয়ায়। সোমবার সে বক্সিরহাট আসে, শুরু হয় তুমুল অশান্তি। তখনই আচমকা ধারালো অস্ত্র নিয়ে আক্রমণ করেন স্ত্রী অঙ্কিতার ওপর। তাঁকে বাঁচাতে ছুটে আসেন সান্ত্বনা দেবী। দাবি, দুজনকেই অস্ত্রের কোপে ক্ষতবিক্ষত করে এলাকা থেকে চম্পট দেয় গণেশ। এরপর প্রতিবেশীরা দুজনকে উদ্ধার করে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই কর্তব্যরত চিকিৎসক অঙ্কিতা সরকারকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মা সান্ত্বনা সরকার গুরুতর আহত হওয়ায় তাঁকে কোচবিহার মহারাজা নৃপেন্দ্র নারায়ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে  বক্সীরহাট থানার পুলিশ।

Tags

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.